Thursday, April 18International Online Tv Portal
Shadow

সঙ্গীত পরিচালক থেকে আন্তর্জাতিক মিডিয়া কোম্পানির মালিক রাকিব মোসাব্বির

বিনোদন ডেস্ক :

দেশের ক্যাসেট যুগ থেকে টিকটকের যুগে যার সুরে, কন্ঠে, সঙ্গীতে অসংখ্য গান হিট ও শ্রোতাপ্রিয় হয়েছে, সেই শিল্পী, সুরকার, সঙ্গীত পরিচালক রাকিব মোসাব্বির এখন আন্তর্জাতিক মিডিয়া গ্রুপ কোম্পানির মালিক। রাকিব মোসাব্বিরের সঙ্গীত ক্যারিয়ার শুরু হয় ২০০৭ সালে। এর কয়েক বছর পর ২০১৫ সালে দেশের লোকাল একটি অডিও ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স নেন তিনি। যার নাম ছিল ‘আরএম প্রডাকশন’। এই আরএম প্রডাকশনের অনলাইন ভার্সন ছিল ‘টোন ফেয়ার, টিউন ফ্যাক্টরি এবং ফিজিক্যাল ভার্সন ছিল আরএম মিউজিক ফ্যাক্টরি ও আরএম এন্টারটেইনমেন্ট! ‘আরএম প্রডাকশন’ মূলত একটি অনলাইন ভিত্তিক অডিও ভিডিও প্রস্তুতকারক, প্রযোজনা ও পরিবেশনা প্রতিষ্ঠান।

এরপর ২০২০ সালে রাকিব মোসাব্বির প্রযুক্তি উদ্যোক্তা হিসেবে ‘দোয়া মিডিয়া গ্রুপ’ নামে আরও একটি অনলাইন ব্যবসায়ীক লাইসেন্স করেন। পরবর্তীতে ২০২২ সালে তিনি তার ‘দোয়া মিডিয়া গ্রুপ’কে ইউরোপের প্রসিদ্ধ দেশ যুক্তরাজ্যের লন্ডন শহর থেকে একটি আন্তর্জাতিক মিডিয়া গ্রুপ কোম্পানির লাইসেন্সে রুপান্তর করেন। যেটি যুক্তরাজ্যের সরকারি ওয়েবসাইটে নিবন্ধিত হয় ও তালিকাভুক্ত হয়। তার এই ‘দোয়া মিডিয়া গ্রুপ’ হয়ে যায় ‘দোয়া মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড’।

যুক্তরাজ্যের সরকারি ওয়েবসাইটে ভিজিট করে নিবন্ধিত লাইসেন্সের ন্যাচার অব বিজনেস (ব্যবসার ধরন) এ দেখা যায় চারটি ক্যাটাগরিতে রাকিব মোসাব্বির তার ‘দোয়া মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড’ এর লাইসেন্স পেয়েছেন। তার আন্তর্জাতিক লাইসেন্সের ন্যাচার অব বিজনেস (ব্যবসার ধরণ) গুলো হল- ১. সংবাদপত্রের প্রকাশনা, ২. রেডিও সম্প্রচার ৩. টেলিভিশন প্রোগ্রামিং এবং সম্প্রচার কার্যক্রম, ৪. সংবাদ সংস্থার কার্যক্রম। তার এই মিডিয়া গ্রুপ কোম্পানি যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন দেশসমূহ’সহ সারা বিশ্বব্যাপী কার্যক্রম পরিচালনা করতে সক্ষম বলে জানা যায়।

রাকিব মোসাব্বির জানান, আমি মূলত আমার গানের ক্যারিয়ারের পাশাপাশি কিছু করার চেষ্টা করছি। নিজের অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান করেছি বহু আগে। এরপর প্রযুক্তি উদ্যোক্তা হিসেবে অনলাইনে অডিও, ভিডিও ও আর্টিকেল কন্টেন্ট নির্মাণ করছি। আমার নিজের বেশ কিছু ইউটিউব চ্যানেল, ওয়েবসাইট, ফেসবুক মনিটাইজ রয়েছে। এইগুলো থেকে ভালই আয় হচ্ছে। যেহেতু আমার অনলাইনে মনিটাইজের সংখ্যা বেশি, ফলে এক একটা থেকে অল্প অল্প করে আয় হলেও তুলনামূলক বলা যায় সম্মানজনক আয় হয়।

রাকিব মোসাব্বির আরও জানান, সামনে তার আয় আরও বৃদ্ধি পেলে অফিসিয়ালি লোকবল নিয়োগ দিবেন। বর্তমানে তিনি অনলাইনে ফ্রিল্যান্সার হায়ার করে ও থার্ডপার্টি কোম্পানির সাহায্যে নিজের প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম তার লন্ডনের ভার্চুয়াল অফিস থেকেই পরিচালনা করছেন। তিনি মূলত বাংলাদেশ থেকে বসেই তার ভার্চুয়াল অফিস কন্ট্রোল করেন। রাকিব মোসাব্বির বলেন, বর্তমানে দেশের ডিজিটাল সেক্টর অভাবনীয় ভাবে উন্নতি সাধন করছে। যার ফলে আমরা দেশ থেকে বসেই আন্তর্জাতিকভাবে নিজেদের ভার্চুয়াল অফিস পরিচালনা করতে পারছি। আশা করি এই ডিজিটাল বাংলাদেশের কল্যাণে আমরাও একদিন এক একজন জ্যাক মা কিংবা মার্ক জাকারবার্গ এর মত উদ্যোক্তা হতে পারবো দেশে বসেই। সেদিন আর বেশি দূরে নয়।

রাকিব মোসাব্বির মূলত একাধারে একজন কন্ঠশিল্পী, সুরকার, গীতিকার ও সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে বেশি পরিচিতি লাভ করলেও তিনি বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি একাধারে একজন মেধাবী সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার, মিউজিক সফটওয়্যার স্পেশালিষ্ট, ভিডিও /অ্যানিমেশন/ ভিএফএক্স সফটওয়্যার স্পেশালিষ্ট, রেকর্ডিং স্টুডিও স্পেশালিস্ট, গ্রীণ স্ক্রিন স্টুডিও স্পেশালিষ্ট, রেকর্ডিস্ট, অডিও মিক্স ও মাস্টারিং স্পেশালিষ্ট, মোবাইল অ্যাপ অডিও/ভিডিও/ফটো এডিটিং স্পেশালিষ্ট, কন্টেন্ট ক্রিয়েটর, ডিওপি, লেখক, কলামিস্ট, ভিডিওনির্মাতা, নাট্যকার, গল্পকার, অ্যানিমেশন ক্রিয়েটর, আইটি স্পেশালিষ্ট, ওয়ার্ডপ্রেস স্পেশালিষ্ট, থিম কাস্টমাইজার, সোশ্যাল মিডিয়া সিকিউরিটি রিসার্চার, সোশ্যাল মিডিয়া স্পেশালিষ্ট, পডকাস্ট আর্টিস্ট, মডেল, অনলাইন রিসার্চার ইত্যাদি আরও বহুগুনে গুনাণিত। রাকিব মোসাব্বির এর এত এত গুন থাকায় তার পরিচিতজনদের অনেকে তাকে আদর করে ‘ক্রিয়েটিভ অলরাউন্ডার’ বলেই ডাকেন। জানা যায়, রাকিব মোসাব্বির কম্পিউটার সফটওয়্যার ও মোবাইল অ্যাপ মিলিয়ে প্রায় ২০০ এর মত অ্যাপ ও সফটওয়্যার পরিচালনা করতে পারেন। তার মধ্যে রয়েছে মিউজিক বানানোর সফটওয়্যার, মিউজিক বানানোর অ্যাপ, ভিডিও বানানোর সফটওয়্যার, ভিডিও বানানোর অ্যাপ, অ্যানিমেশন বানানোর সফটওয়্যার, অ্যানিমেশন বানানোর অ্যাপ, ফটো এডিটিং সফটওয়্যার, ফটো এডিটিং অ্যাপ ইত্যাদি অসংখ্য কম্পিউটার সফটওয়্যার ও মোবাইল অ্যাপ। যেগুলো চালাতে রাকিব মোসাব্বির খুবই পারদর্শী।

আপনি এত এত দক্ষতা কিভাবে আয়ত্ত্ব করলেন? এমন প্রশ্নের জবাবে রাকিব মোসাব্বির বলেন, আসলে সবকিছুই আল্লাহর দান। আল্লাহ আমায় এত কিছু দান না করলে আমি আসলে কিছুই করতে পারতাম না। তাছাড়া আমি এইগুলো নিয়ে অনেক রিসার্চ করেছি, অনেক সময় দিয়েছি। এক্সপেরিমেন্ট করতে গিয়ে অনেক ইনভেস্টমেন্ট করেছি। রাতদিন পরিশ্রম করেছি৷ তবে সবকিছু আল্লাহ প্রদত্ত হওয়ায় আমি অতি সহজে অনেক কিছু ক্যাচ করতে পারি, যেটার প্রতি আমার আগ্রহ থাকে৷ আর আমার কোন বিষয়ে লেগে থাকার ধৈর্যের মন-মানসিকতা প্রচন্ড রকমের। তাই আমি পারছি, পেরেছি এবং আগামীতেও পারবো, ইনশাআল্লাহ। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।

দোয়া মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট
https://dowamedia.com

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *