Thursday, April 18International Online Tv Portal
Shadow

ফিচার

অতিরিক্ত উপ পুলিশ মহাপরিদর্শক হলেন ভৈরবের কৃতি সন্তান আপেল মাহমুদ

অতিরিক্ত উপ পুলিশ মহাপরিদর্শক হলেন ভৈরবের কৃতি সন্তান আপেল মাহমুদ

ফিচার, শিরোনাম
অনলাইন ফিচার ডেস্ক : বিসিএস ক্যাডার (পুলিশ) কর্মকর্তা কিশোরগঞ্জের ভৈরবের কৃতি সন্তান আপেল মাহমুদ চট্রগ্রাম রিজিউনের টুরিস্ট পুলিশ সুপার থেকে অতিরিক্ত উপ-পুলিশ মহা পরিদর্শক পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। তিনি ভৈরব পৌর শহরস্থ জমির উদ্দিন মুন্সি বাড়ীর প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধে ৩নং সেক্টর কমান্ডার ছিদ্দিকুর রহমান সেন ও নুরজাহান বেগম দম্পতির তৃতীয় ছেলে। তিনি ভৈরবের স্বনামধন্য সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদ এম আর সোহেল ও ইতালি প্রবাসী রুবেল মাহমুদ সেন এর আপন ছোট ভাই। ছাত্র জীবনে মেধাবী শিক্ষার্থী আপেল মাহমুদ ২৪তম বিসিএস ক্যাডার বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে এ.এস.পি পদে যোগদান করেন। তার পূর্বের কর্মস্থল এ এস পি র‌্যাব, ময়মনসিংহ জেলা, নাটোর জেলা, সিলেট জেলা, এডিশনাল এএসপি নাটোর জেলা, এডিশনাল এএসপি নরসিংদী, কুমিল্লা জেলা পিবিআই এবং সর্বশেষ তিনি চট্রগ্রাম রিজিওনের ট্যুরিস্ট পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব...
জেলার শ্রেষ্ঠ বিএনসিসি শিক্ষক (অফিসার) নির্বাচিত হয়েছেন শিক্ষক মো. অহিদুর রহমান

জেলার শ্রেষ্ঠ বিএনসিসি শিক্ষক (অফিসার) নির্বাচিত হয়েছেন শিক্ষক মো. অহিদুর রহমান

ফিচার
অনলাইন ডেস্ক : জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০২৩ প্রতিযোগিতায় কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব পৌর শহরের কমলপুর হাজী জহির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লেফট্যানেন্ট মো. অহিদুর রহমান জেলার শ্রেষ্ঠ বিএনসিসি শিক্ষক (অফিসার) নির্বাচিত হয়েছেন। ৯ অক্টোবর সোমবার দুপুরে কালেক্টরেট সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন ও জেলা শিক্ষা অফিস আয়োজিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তাকে ক্রেস্ট ও সনদ প্রদান করা হয়েছে। কিশোরগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিসার শামছুন নাহার মাকছুদা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) ফারজানা খানম। লেফট্যানেন্ট মো. অহিদুর রহমান (বিএনসিসি) কিশোরগঞ্জ জেলা পর্যায়ে ষষ্ঠ বারের মতো এবারোও শ্রেষ্ঠ বিএনসিসি শিক্ষক নির্বাচিত হন। মো. অহিদুর রহমান ভৈরব পৌর শহরের কমলপুর হাজী জহির উদ্দিন ...
সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রসংশিত অভিনেতা ও পুলিশের এসআই জাহাঙ্গীর

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রসংশিত অভিনেতা ও পুলিশের এসআই জাহাঙ্গীর

ফিচার, শিরোনাম
অনলাইন ডেস্ক : সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে পুলিশি সেবা ও অপরাধ নির্মূলে নানা ধরনের ভিডিও কন্টেন্ট তৈরি করে ব্যাপক মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছে এবং প্রশংসায় ভাসছেন পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম। পুলিশ সদস্য জাহাঙ্গীর আলম কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারী উপজেলায় জুম্মাপাড়া এলাকায় জন্যগ্রহণ করেছেন। বর্তমানে এই পুলিশ সদস্য টাঙ্গাইল জেলার ধনবাড়ী থানায় উপপরিদর্শক (এসআই) পদে কর্মরত আছেন। এসআই জাহাঙ্গীর আলম বিভিন্ন টিভি চ্যানেল এবং ইউটিউব চ্যানেলে অভিনয় করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন। তার অভিনীত নাটকগুলোর মধ্যে তিন গোয়েন্দা, বিল্টুমামা, মধ্যরাতের ট্রেন, থ্রিসিস্টার্স, শঙ্খ সাদা পরিবার, হলুদ শাড়ী লাল পাড়, ঘাটের মানুষ, লাকিনিউটন, ইস্যু, রাঙ্গাভুবন, ভজকটসহ চ্যানেল আইতে প্রচারিত ক্রাইম স্টোরির অসংখ্য এপিসোডে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন। লেখালেখিতেও সিদ্ধহস্ত এসআই জাহাঙ্গীর আলম তোমাকে চাই,...
এসবই এক প্রকার কুৎসিত মানসিকতা- আশরাফুল আলম খোকন

এসবই এক প্রকার কুৎসিত মানসিকতা- আশরাফুল আলম খোকন

ফিচার, শিরোনাম
অনলাইন ডেস্ক : আমাদের মানসিকতা দিন দিন কেমন জানি হয়ে যাচ্ছে।সবাই কেমন যেন অতৃপ্ত আত্মা নিয়ে চলি, কোন সন্তুষ্টি নাই। অন্যের ভালোতে তারিফ করতে জানিনা। শুধু ভুল খুঁজে বেড়াই, হিংসায় মরে যাই। একটা সুন্দর মেয়ে যদি ভালো রেজাল্ট করে, বলবে, হয়তো শিক্ষকের সাথে লাইন মেরেছে। যদি চাকুরীতে ভালো করে, খুব নোংরা ভাবে বলবে, বস এর সাথে শুয়ে শুয়ে প্রমোশন পাচ্ছে। সে যতই যোগ্যতা সম্পন্ন হোক না কেন। কিন্তু মেয়েটি যদি দেখতে অসুন্দর হয়, গর্ব করে বলবে, অনেক মেধাবী, মেয়েটা তার যোগ্যতা দিয়ে এতদূর এসেছে। এসবই এক প্রকার কুৎসিত মানসিকতা। এই মানসিকতা থেকেই আমরা, সোশ্যাল মিডিয়ার ভাইরাল একজন স্বীকৃত চোরকে নিয়ে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বানাই। ওই এলাকাই হয়তো অনেক যোগ্যতা সম্পন্ন মানুষ আছে, তাকে হিংসা করি। এই কুৎসিত মানসিকতা থেকেই একটি কুরুচি সম্পন্ন মানুষকে জাতির হিরো বানিয়ে দেয় দেই। পত্রিকায় উপ-সম্পাদকীয় আসে...
চাকরি ছেড়ে শিঙাড়া বিক্রি করে বছরে আয় ৪৫ কোটি রুপি!

চাকরি ছেড়ে শিঙাড়া বিক্রি করে বছরে আয় ৪৫ কোটি রুপি!

ফিচার, শিরোনাম
অনলাইন ডেস্ক :  ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর বেঙ্গালুরুরের এক দম্পতির বসবাস। যারা এক সময় উচ্চ বেতনের চাকরি করতেন। কিন্তু সেই চাকরি ছেড়ে এখন তারা শুধু শিঙাড়াই বিক্রি করছেন। এতে তাদের যা আয় তা সবচেয়ে ভাল চাকরির বেতনের চেয়েও অনেক বেশি। এখন তাদের বার্ষিক বিক্রি ৪৫ কোটি রুটি। প্রতিদিন ১২ লাখ। নিধি সিং ও তার স্বামী শিখর সিং। পাঁচ বছর ধরে সংসার করছেন তারা। তাদের প্রথম পরিচয় হরিয়ানার বায়োটেকনোলজিতে বি-টেক পড়ার সময়। এরপর শিখর হায়দরাবাদের ইনস্টিটিউট অব লাইফ সায়েন্স থেকে এমটেক সম্পন্ন করেন। এরপর বায়োকন কোম্পানিতে প্রিন্সিপাল সায়েন্টিস্ট হিসেবে চাকরি নেন। অন্যদিকে নিধি গুরুগ্রামের একটি ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি করতেন। তার বেতন ছিল মাসে ৩০ লাখ। নিধি ও শিখর উভয়ই আর্থিকভাবে সচ্ছল পরিবারের। তারপরও সবসময় নিজেদের মতো করে কিছু কতে চাইতেন। সেই চাওয়া থেকে ২০১৫ সালেই চাকরি ছেড়ে ব্যবসা শুরু করেন তারা। কোম্পানির ...